পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প 2020 অনলাইনে আবেদন করুন | Swasthya Sathi Project In West Bengal

পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প 2020 অনলাইনে আবেদন করুন | Swasthya Sathi Project In West Bengal : বন্ধুরা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 27/11/2020 ঘোষণা করেছেন যে স্বাস্থ্য বীমা ছাড়া যে কোনও ব্যক্তি সরকারী Sponsored স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার অধিকারী হবেন, যার আওতায় একটি পরিবার বছরে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্য Coverage পাবে.

Swasthya Sathi Project In West Bengal

যারা Online এ আবেদন করতে ইচ্ছুক তারা সবাই সরকারী Notification টি Download করুন। এই প্রকল্পের Criteria কি এবং Application Process টি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। আমরা এই প্রকল্পটির Scheme Benefits, যোগ্যতার Criteria, প্রকল্পের মূল বৈশিষ্ট্য, Application এর Status, আবেদনের Process এবং আরও অনেক কিছু সম্পর্কে “পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য সাথী পরিকল্পনা ২০২০” সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত তথ্য সরবরাহ করব.

স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের অনুদানের পরিমান কত ?

এই প্রকল্পে অনুদানের পরিমান প্রতি পরিবার পিছু 5 লাখ টাকা পর্যন্ত চিকিৎসার খরচ রাজ্য সরকার বহন করবে.

পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প 2020 এর উদ্দেশ্য সমূহ

• পশ্চিমবঙ্গের সকল জনসাধারনের স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রেখে স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প যে সুস্বাস্হ্যের  ব্যবস্হা করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী দ্বারা গৃহীত একটি Mediclaim Policy হল ‘স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প’.
• এই প্রকল্পের মূল লক্ষ্য হল, রাজ্যের সাধারণ জনসাধারনের কাছে অতি অল্পমূল্যে আধুনিক চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ায় এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য.
• রাজ্যের যে সব জনসাধারনের অন্য কোনো সরকারি স্বাস্থ্য প্রকল্প এ নাম নেই, তাঁদের কে স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের আওতায় আনা হবে.
• এই সিদ্ধান্তটি ২০২০ সালের ১ লা ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হবে। সরকার পরিবর্তিত এই প্রকল্পে রাজ্যের সব ধর্ম – বর্ণ, গোষ্ঠী নির্বিশেষে সমস্ত মানুষকে এই প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের মূল বৈশিষ্ট্য

১. পরিবার প্রতি বছরে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত Secondary এবং Tertiary Care হিসেবে প্রাথমিক স্বাস্থ্য Cover প্রদান করা.

২. প্রকল্পটি ১লা ডিসেম্বর 2020 থেকে কার্যকর হবে.

৩. Paperless, Cashless, Smart Card ভিত্তিক চিকিৎসার ব্যবস্থা.

৪. রাজ্যের মোট জনসংখ্যার 2.5 কোটি এই প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত হবে এবং রাজ্য সরকারকে এ জন্য বছরে 2000 কোটি টাকা ব্যয় করতে হবে.

৫. পরিবারের আকারের কোনও সীমাবদ্ধতা নেই এবং স্বামী / স্ত্রীর উভয়ের পিতামাতার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। পরিবারের সমস্ত নির্ভরশীল শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরাও এর আওতায় পড়েছেন.

৬. পূর্বের সমস্ত বিদ্যমান রোগ Cover করা হবে.

৭. এই Scheme টির সুবিধা পেতে প্রতিটি পরিবারকে একটি করে Smart Card সরবরাহ করা হবে.

৮. তালিকাভুক্তির দিন প্রতিটি পরিবারকে Online স্বার্থ সাথী Smart Card সরবরাহ করা হয়। Smart Card পরিবারের সদস্যদের বিশদ, Photographs, Biometric, ঠিকানা, মোবাইল নম্বর, SECC ID নথিভুক্ত করে.

৯. সরকারী হাসপাতালের পাশাপাশি প্রায় ১৫০০ টি Empaneled বেসরকারি হাসপাতাল রয়েছে.

১০. পুরো Premium টি রাজ্য সরকার বহন করে এবং সুবিধাভোগীর কোনও অবদান নেই.

১১. এই প্রকল্পের পরিচালনা প্রথম দিন থেকেই কাগজ বিহীন IT Platform এ রয়েছে.

স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের সুযোগ সুবিধা গুলি কি কি?

• ‘স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প’-এ প্রত্যেক পরিবার বীমার আওতায় থাকার সুযোগ সুবিধা পাবেন.
• যদি প্রকল্পের দ্বারা লাভবান পরিবারের কোনও ব্যক্তি বিশেষ কোনও রোগের অসুস্থ হয়ে পড়েন, তবে তাঁর চিকিৎসার সুব্যবস্হার জন্য সরকারের প্রকল্পটির থেকে সাহায্য পাওয়া যাবে.
• স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের পরিবারের নিয়ম অনুযায়ী প্রতি পরিবারের সবাই ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত প্রাথমিকভাবে স্বাস্থ্য সুরক্ষা পাবে.
• প্রকল্পের আওতায় থাকাকালিন ব্যক্তি অসুস্থকালীন বিনা পয়সায় ঔষধ, খাবার, পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং হাসপাতালের চিকিৎসার সমস্ত পরিষেবা গ্রহণ করতে পারবেন.
• রোগীর ভর্তির থেকে এবং ছাড়া পাওয়ার পর পরবর্তী পাঁচ দিনের ঔষধ বিনা পয়সায় পাবে এবং সরকারের প্রকল্পের তরফ থেকে যাতায়াত খরচ বাবদ অতিরিক্ত ২০০ টাকা পাবে.

নির্দেশিকা অনুযায়ী কারা কারা এই সুবিধা পাবেন?

• আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে.
• আশা কর্মী, ANM এবং ICDS এর সাথে যুক্ত আবেদনকারীরা এই প্রকল্পের অনুমতি পাবেন। এটি স্ব-সহায়তা গ্রুপের সদস্যদের জন্য প্রযোজ্য.
• যদি আবেদনকারী একজন সিভিল ভলান্টিয়ার হিসাবে কাজ করেন তবে তিনি এই চিকিত্সা বীমা কভারেজ Coverage টি অর্জন করবেন।

• একজন আবেদনকারীকে সরকারের অন্য কোনও স্বাস্থ্যসেবা প্রকল্পের আওতায় না আসেন তিনি এই সেবা পাবেন.
• Smart Card পরিবারের একজন মহিলা সদস্যের নামে ইস্যু করবে.
• প্রাসঙ্গিক যে আবেদনকারী বিপিএল বিভাগে পড়ে। যদি সে আরএসবিওয়াইয়ের আওতায় নিবন্ধিত হয় তবে কেবলমাত্র ব্যক্তি আবেদন করতে পারবেন।

পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের প্রয়োজনীয় Document

অনলাইন আবেদন করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ Document গুলি হলো :-

১. আবেদনকারীকে অবশ্যই তার Legal Domicile নথি তৈরি করতে হবে.

২. আবেদনকারীদের অবশ্যই তাদের বিপিএল certificates দাখিল করতে হবে.

৩. এসএইচজি এবং মেডিকেল সংস্থাগুলির Registration Certificate প্রয়োজনীয়.

৪. আবেদনকারীকে একটি অনুমোদিত নথি জমা দিতে হবে যা পশ্চিমবঙ্গ সরকার জারি করেছে.

পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের Application Form 2020 আবেদন করার পদ্ধতি – How to Apply For Swasthya Sathi Project Online

Swasthya Sathi Project In West Bengal
Swasthya Sathi Project In West Bengal

Step :- ১

এই প্রকল্পের জন্য আবেদনের জন্য নিকটস্থ সরকারী হাসপাতালে যান এবং Offline Mode এ নাম নথিভুক্ত করান.

Step :- 2

আবেদনকারী নিকটস্থ গ্রামের মেডিকেল সেন্টারে এজেন্ট Agent দের মাধ্যমে নাম Registration করতে পারবেন.

Step :- ৩

Agent রা Offline Applicatin প্রক্রিয়ায় লোকদের সহায়তা করে.

Step :- ৪

তারপর আবেদন প্রক্রিয়াতে এবং আবেদনকারীকে অবশ্যই প্রকল্পের নির্দেশিকায় উল্লিখিত সমস্ত নথির Photo Copy এবং মূলগুলি Connect করতে হবে কারণ তালিকাভুক্তি Agent প্রয়োজনীয় নথিগুলি যাচাই করবে.

Step :- ৫

তালিকা ভুক্তির জন্য Agent লোককে Log In করতে এবং প্রার্থীর পক্ষে Registration Form পূরণ করতে সহায়তা করতে পারে.

Step :- ৬

এবার তালিকা ভুক্তির Form পূরণ এবং জমা দেওয়ার পরে, সাইট Site টি প্রার্থীর জন্য একটি ID এবং Password তৈরি করবে.

Step :- ৭

এখন আবেদনকারী ID এবং Password দিয়ে Scheme সাইটে আনুষ্ঠানিকভাবে Log In করতে পারেন.

Step :- ৮

স্বাস্থ্য সাথী Smart Card সরকারী Portal এর মাধ্যমে তৈরি করা হবে। Log In করার পরে, আবেদনকারী এই Digitized Card টি অর্জন করতে পারবেন.

স্বাস্থ্য সাথী কার্ড কি – What is Swasthya Sathi Card in Bengali

এই প্রকল্প যাদের নাম নথিভুক্ত আছে বা swasthya sathi apply করছে তাদের কাছে একটি স্বাস্থ্য সাথী কার্ড দেওয়া হয়েছে। এই কার্ডটি সাধারণ কার্ডের মত নয়। এই কার্ডটি Digital Type হয়ে থাকে.

কিছুটা ATM Card এর মত হয়ে থাকে। এই Card এর এক পাশে Sim Card এর মত Chipset লাগানো হয়েছে। এই  Chipset টি লাগানোর কারণ Computer এর মাধ্যমে আপনার সব কিছু তথ্য  Updatr করা হয় । অপর সাইডে স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের Logo এবং Beneficiary গ্রাহকের নাম থাকবে। পশ্চিমবঙ্গ যেকোনো প্রান্তে এই কার্ড টা দেখালে  আপনি বিনা পয়সায় চিকিৎসা করাতে পারবেন.

স্বাস্থ্য সাথী মোবাইল এপ্লিকেশন – Swasthya Sathi Mobile Application

স্বাস্থ্য সাথী পশ্চিমবঙ্গের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দ্বারা প্রবর্তিত সরকারী এবং বেসরকারী হাসপাতাল থেকে Cashless Secondary এবং Third Care চিকিত্সা প্রদানের জন্য চালু করা একটি Flagship Scheme.

স্বাস্থ্য সাথি App টিতে নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যগুলি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে :-

ক) ব্যক্তিগত এবং পাবলিক হাসপাতাল Empanelled.
খ) হাসপাতালের সুবিধার বিবরণ.
গ) চিকিত্সকদের তথ্য.
ঘ) স্বাস্থ্য সাথী প্যাকেজগুলি.
ঙ) হাসপাতাল সেবা.
চ) URN যাচাই করণ.
ছ) Photo Gallery.
ঝ) Video রাখা ও দেখার স্থান.
ঞ) স্বাস্থ্য সাথী সম্পর্কে অন্যান্য তথ্য

আমাদের শেষ কথা

তাই বন্ধুরা, আমি আশা করি আপনি অবশ্যই একটি Article পছন্দ করেছেন (পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প 2020 অনলাইনে আবেদন করুন | Swasthya Sathi Project In West Bengal)। আমি সর্বদা এই কামনা করি যে আপনি সর্বদা সঠিক তথ্য পান। এই পোস্টটি সম্পর্কে আপনার যদি কোনও সন্দেহ থাকে তবে আপনাকে অবশ্যই নীচে মন্তব্য করে আমাদের জানান। শেষ অবধি, যদি আপনি Article পছন্দ করেন (Swasthya Sathi Project In West Bengal), তবে অবশ্যই Article টি সমস্ত Social Media Platforms এবং আপনার বন্ধুদের সাথে Share করুন।

Leave a Comment